• Home »
  • VISA »
  • জার্মান এম্বেসী ঢাকার কাউন্সিলর সার্ভিস এবং ভিসার নিয়মাবালী

জার্মান এম্বেসী ঢাকার কাউন্সিলর সার্ভিস এবং ভিসার নিয়মাবালী

 

জার্মান এম্বেসী বাংলাদেশের কাউন্সিলর সার্ভিস এবং ভিসা সম্পর্কিত নিয়মাবালীর সারসংক্ষেপঃ

–      ভিসা কাউন্টার রবিবার সম্পূর্ণরূপে বন্ধ থাকে।

–      সোম থেকে বৃহস্পতি – প্রতিদিন সকাল ৯:০০ টা থেকে দুপুর ১১:৩০ পর্যন্ত ভিসা কাউন্টার ভিসা এপ্লিকেশন গ্রহন করে থাকে। আর ভিসা এপ্লিকেশন সাবমিট করার জন্য আপনাকে অবশ্যই এম্বেসী থেকে আগে ভাগেই এপোয়েন্টমেন্ট নিতে হবে। এক্ষেত্রে বলা বাহুল্য যে কোন রকম পূর্ব এপোয়েন্ট ছাড়া এম্বেসীতে কোনরূপ ভিসা এপ্লিকেশন গ্রহণ করা হয় না।

–      প্রতিদিন এম্বেসীর অফিস চলাকালীন সময়ে আপনি এই নাম্বারে (+880 2 985 35 21 ext. 153) ফোন করে এপোয়েন্টমেন্ট নিতে পারেন।Flughafen - Information

–      এক্ষেত্রে মনে রাখা জরুরী যে এম্বেসী ই-মেইল বা ফ্যাক্সের মাধ্যমে কোন ধরনের এপোয়েন্টমেন্ট দেয় না।

–      ফোনে ভিসা সংক্রান্ত যেকোন তথ্যের জন্য সকাল ৮:১৫ থেকে ৯:০০ টা এবং দুপুর ৩:০০টা থেকে ৩: ৩০ এই সময়ের মধ্যে যোগাযোগ করুন।

–      এই নিয়ম গুলো ছাত্র-ছাত্রী ছাড়া মানে যারা জার্মানীতে ব্যাচেলর্স/মাস্টার্স/পিএইচডি করার জন্য যেতে চাচ্ছে তাদের জন্য প্রযোজ্য নয়। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য নীচের নিয়মাবলী প্রযোজ্য।

KONICA MINOLTA DIGITAL CAMERA

ছাত্র-ছাত্রীদের  জন্য ভিসা ইন্টারভিউ এর এপোয়েন্টমেন্ট নেবার নিয়ম কানুনঃ

–      ছাত্র-ছাত্রীদের শুধু মাত্র ই-মেইলের মাধ্যমে ভিসা ইন্টারভিউ এর এপোয়েন্টমেন্ট দেয়া হয়। ই-মেইলটি হচ্ছে student-visa@dhaka.diplo.de

–      অরিজিনাল অফার লেটার, পাসপোর্ট নাম্বার, ভ্যালিড ফোন নাম্বার –  এই তথ্যগুলো, মূলকপি ইত্যাদি পিডিএফ আকারে সংযুক্ত করে উপরে প্রদত্ত এড্রেসে ই-মেইল করলে এম্বেসী ফিরতি মেইলে আপনাকে এপোয়েন্টমেন্ট দিবে। মনে রাখবেন এই স্টেজে আপনাকে কোন অরিজিনাল ডকুমেন্ট  সরাসরি এম্বেসীতে প্রেরণ করতে হবে না। অরিজিনাল ডকুমেন্ট দেখাতে হবে তখন যখন আপনি এম্বেসীতে ব্যাক্তিগভাবে ভিসা ইন্টারভিউ দিতে যাবেন । বিস্তারিত এখানে পাবেন।

–   ভিসা এপোয়েন্টমেন্টের জন্য  student-visa@dhaka.diplo.de ছাড়া অন্য কোন ইমেইল এড্রেস ব্যবহার না করার জন্য এম্বেসীর তরফ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।

–      এম্বেসীর তরফ থেকে অবশ্য ১ টির বেশি ই-মেইল প্রেরণ না করার জন্য বলা হয়েছে।

–      ই-মেইলের সাবজেক্ট টা যথা সংক্ষেপে গুছিয়ে লিখার চেষ্টা করুন। এতে করে আপনার ই-মেইলের গুরুত্ব অনুধাবন করে এম্বেসী কর্তৃপক্ষ আপনাকে এফিশিয়েন্টলী তাদের সার্ভিস প্রদান করতে পারবে। আর এর ফলে তারা যতটা না উপকৃত হবে তার চেয়ে বরং আপনিই বেশী উপকৃত হবেন। এবার আসি আপনি আপনার ই-মেইলের সাবজেক্টটি কিভাবে লিখবেন। এক্ষেত্রে এম্বেসীর পরামর্শ হচ্ছে আপনি আপনার ই-মেইল সাবজেক্টি দুই অংশে ভাগ করুন – প্রথম ভাগ থাকতে পারে আপনি যে কোর্সে/ডিগ্রীতে যেতে চাচ্ছেন তার নাম আর দ্বিতীয় ভাগে থাকতে পারে ডেডলাইন বা কবের মধ্যে আপনাকে অবশ্যই জার্মানী পৌঁছুতে হবে সেই তারিখ। উদাহরন স্বরূপ বলা যেতে পারেঃ “Seeking Visa appointment for Bachelor , deadline 15th August 2014” বা “Seeking Visa appointment for Masters , deadline 15th August 2014”। এবার আপনি আপনার প্রয়োজন মত আপনার ইমেইলের সাবজেক্ট কাস্টমাইজ করে নিন।

–      ধরা যাক আপনি ই-মেইল করলেন। এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে ভিসা ইন্টারভিউ এর এপোয়েন্টমেন্টের জন্য ইমেইল করলে এম্বেসী কর্তৃপক্ষ সাধারণত প্রাপ্তি স্বীকার করে ই-মেইল প্রদান করে না। আপনি যদি উপর্যুক্ত নিয়মকানুন অনুযায়ী ই-মেইল করে থাকেন তাহলে আশা করা যায়  আপনি একেবারে আপনার এপোয়েন্টমেন্ট ডেট সহ পরবর্তী ই-মেইল পাবেন। তবে মাঝখানে একটু সময় আপনাকে এম্বেসীকে দিতেই হবে কারন আজকাল ছাত্র-ছাত্রী এপোয়েন্টমেন্ট চেয়ে আবেদন করছে। তাই এম্বেসী আপনাকে অনুরোধ করছে  মধ্যবর্তী সময়টাতে একটু ধৈর্য্য ধারন করার জন্য।

 ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এম্বেসীর তরফ থেকে গুরুত্বপূর্ন নোটিসঃ

–  ( যারা পরবর্তী সেমিস্টারে জার্মানীতে মাস্টার্স বা ব্যচেলর (বাধ্যতামূলক জার্মান কোর্স সহ) পড়ার জন্য ইতিমধ্যে অফার লেটার পেয়ে গেছেন বা যারা ইতিমধ্যে জুনের প্রথম সপ্তাহের পরে ভিসা ইন্টারভিউ এর এপোয়েন্টমেন্ট পাবার জন্য আবেদন করেছেন, এম্বেসীর পক্ষ থেকে তাদেরকে দুঃখের সাথে জানানো যাচ্ছে যে এম্বেসীর পক্ষে এখন আর নতুন করে ভিসা এপোয়েন্টমেন্ট সম্ভব নয়।  এম্বেসি সম্পূর্নরূপে জ্ঞাত আছে যে জার্মানীর অনেক ইউনিভার্সিটি অনেক সময় দেরীতে ছাত্রছাত্রীদের ‘অফার লেটার’ ইস্যু করে যার কারনে বাংলাদেশে অবস্থিত ছাত্র-ছাত্রীরা কম সময়ের মধ্যে তাদের ভিসা প্রসেসিং নিয়ে প্রচন্ড চাপের মধ্যে পড়ে যায়। এক্ষেত্রে এম্বেসী দুঃখের সাথে বলতে বাধ্য হচ্ছে যে এই ইস্যুতে এম্বেসীর আসলে তেমন কিছুই করার নেই।)

 –      অনেকেই আছেন যারা শেষ মুহুর্তে ভিসা ইন্টারভিউ এর তারিখ পরিবর্তন করেন কিংবা ভিসা ইন্টারভিউ এর দিনে অনুপস্থিত থাকেন। এম্বেসীর পক্ষ থেকে তাদের প্রতি বিশেষ অনুরোধ থাকবে- এরূপ পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে আগে ভাগেই আপনারা  এম্বেসীকে  সে সম্পর্কে জানান। তাহলে এম্বেসী আপনাকে দেয়া ‘টাইম স্লট’ টি অন্য কাউকে দিতে পারবে।

 –      যারা ইতিমধ্যেই ‘এপোয়েন্টমেন্টের’ জন্য আবেদন করেছেন এম্বেসীর পক্ষ থেকে তাদেরকে সাময়িক ধৈর্য্য ধারন করার অনুরোধ করা হচ্ছে। কারন আপনাদের কাগজপত্র গুলো সংশ্লিষ্ট ল্যাঙ্গুয়েজ স্কুল বা ইউনিভার্সিটি কর্তৃক ভেরিয়ফায়েড হয়ে আসতে একটু সময়ের প্রয়োজন। ‘তথ্য সংরক্ষণ আইন’ এর বাধ্যবাধকতার কারনে এম্বেসীর পক্ষে আপনাকে আপনার ভিসা স্ট্যাটাস সংক্রান্ত কোন তথ্য ফোন/ই-মেইল/ফেইসবুকের মাধ্যমে দেয়া সম্ভব নয়।

 –      অনেকেই এম্বেসীতে ভিসা ফেইস করার পরপরই ভিসা আবেদনের ফলাফল জানতে চেয়ে ফোন/ইমেইল/ফেইসবুক ইত্যাদির মাধ্যমে এম্বেসীর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন। সেক্ষেত্রে এম্বেসীর পক্ষ থেকে এই ধরনের প্রচেষ্টাকে নিরুৎসাহিত করে সাময়িক ধৈর্য্য ধারনের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। ‘দায়িত্বপ্রাপ্ত এলিয়েন অফিস’ আপনার ভিসা আবেদন সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত এম্বেসীকে জানানোর পর পরই এম্বেসী সেই সিদ্ধান্ত তাদের ওয়েব সাইটে পাব্লিশ করে থাকে। সেই পর্যন্ত অপেক্ষা করা ছাড়া আপনার বা এম্বেসী কারোরই কোন উপায় নেই। আর এম্বেসী কোনভাবেই আপনার কাজের জন্য  ‘দায়িত্বপ্রাপ্ত এলিয়েন অফিস’ এর সিদ্ধান্ত গ্রহণপ্রক্রিয়াকে ত্বরাণ্বিত বা প্রভাবিত করতে পারে না।

visumschengenantrag

 বাদ পড়ে যাওয়া ডকুমেন্ট কিভাবে সাবমিট করা যাবে:

–      এই প্যারাগ্রাফটি তাদের জন্য প্রযোজ্য যারা অলরেডি ভিসা ইন্টারভিউ একবার ফেইস করে ফেলেছেন কিন্তু ডকুমেন্টস সাবমিশন করার  সময় দেখা গেছে যে দু’একটা ডকুমেন্ট হয়ত কোন কারনে মিসিং হয়ে গেছে। তাদের সুবিধার জন্য এম্বেসী আলাদা একটি ই-মেইল একাউন্ট খুলেছে আর তা হচ্ছে missing-documents@dhak.diplo.de। আপনি আপনার বাদ পড়ে যাওয়া ডকুমেন্টস গুলো পিডিএফ আকারে এই এড্রেসে পাঠাতে পারেন।

শর্ট টার্ম ভিসাঃ

– আপনি যদি বাংলাদেশের নাগরিক হন এবং  জার্মানীতে অবস্থিত আত্মীয় স্বজন বা বন্ধু বান্ধবের সাথে দেখা করার জন্য বা ব্যবসায়িক কাজে বা নিছক ভ্রমনের জন্য আপনি জার্মানী যেতে চান তাহলে আপনার প্রয়োজন শর্ট টার্ম ভিসা বা শ্যাঞ্জেন ভিসা যা Austria – Belgium – Czech Republic – Denmark – Estonia – Finland -France – Germany – Greece – Hungary – Iceland – Italy – Latvia -Lithuania – Luxembourg – Malta – Netherlands – Norway – Poland -Portugal – Slovakia – Slovenia – Spain – Sweden ও Switzerland এর জন্য প্রযোজ্য।Berlin / Flughafen Tegel

– এই ভিসার মেয়াদ সর্বোচ্চ নব্বই দিনের যা ভ্যালিড থাকবে পরবর্তী ৬ মাস পর্যন্ত। পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন এই ভিসার আবেদন পত্র আর প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট, রিকোয়ারমেন্ট আর প্রসিজিউরের লিস্ট

– যেসব হেলথ ইন্সুরেন্স কোম্পানীর প্রদত্ত ট্রাভেল ইন্সুরেন্স পলিসি শ্যাঞ্জেন স্টেট গুলো কর্তৃক গ্রহণযোগ্য তাদের লিস্ট ডাউনলোড করুন পিডিএফ ফর্মেটে।

– জার্মানীতে যারা সিম্যান/নাবিক হিসাবে যেতে চাচ্ছেন তাদেরকে যেইসব ডকুমেন্টসগুলো এম্বেসীতে সাবমিট করতে হবে তার একটি লিস্ট পাবেন এখানে

– জার্মানীতে যারা ফ্রিকোয়েন্ট ট্রাভেলার তাদের জন্য বিশেষ নির্দেশনা রয়েছে এই পিডিএফ ফর্মে। ফর্মট ডাউনলোড করতে পারবেন এখান থেকে

Internationale_Eheschlieung

লং টার্ম ভিসাঃ

–  ফ্যামিলি রি-ইউনিয়ন,স্টুডেন্ট, চাকুরী ইত্যাদি সহ যেসব ক্ষেত্রে জার্মানীতে ৯০ দিনের বেশী সময় থাকার প্রয়োজন পড়বে সেইসব ক্ষেত্রের জন্য  লংটার্ম ভিসা প্রযোজ্য।

–    লং টার্ম ভিসার জন্য এপ্লিকেশন ফর্ম ডাউনলোড করতে পারবেন এখান থেকে

–    ফ্যামিলি রি-ইউনিয়ন ভিসার জন্য বিশেষ করনীয় সহ প্রয়োজনী ডকুমেন্টগুলোর লিস্ট পাবেন এখান থেকে

–    স্টুডেন্ট ভিসার জন্য বিশেষ করনীয় সহ প্রয়োজনী ডকুমেন্টগুলোর লিস্ট এখান থেকে পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করতে পারবেন।

–    স্পাউসদের জন্য জার্মান ভাষায় বেসিক দক্ষতা প্রদর্শনের জন্য নিয়ম কানুন

–    সার্টিফিকেট অফ ব্যাচেলরহুড

Dt_Siegel

ট্রানজিট ভিসাঃ

–      জার্মানীর ভেতর দিয়ে যাতায়াতের জন্য কাউকে কাউকে ট্রানজিট ভিসা নিতে হতে পারে।

–      ডাউনলোড করুন ট্রানজিট ভিসা সম্পর্কিত যাবতীয় ইনফর্মেশন পিডিএফ ফর্মেটে

জার্মান এম্বেসী কর্তৃক কাগজপত্র সত্যায়িত করনঃ

জার্মান এম্বাসী সাধারনত মূল কপি প্রদর্শনসাপেক্ষে ডকুমেন্ট, সার্টিফিকেট ইত্যাদির অনুলিপি সত্যায়িত করে থাকে। নির্ধারিত ফী এর বিনিময়ে এম্বেসী এই সার্ভিস দিয়ে থাকে কিন্তু জার্মানীতে ভর্তিচ্ছু ছাত্রছাত্রীদের জন্য এ সেবা সম্পূর্ণরূপে ফ্রী। অবশ্য সত্যায়িতকরনের কাজগুলো এম্বেসী কিছু রুলস এবং রেগুলেশন মেনেই করে থাকে যেগুলো নীচে দেয়া হলোঃ-

সত্যায়িত করনের সাধারন নিয়ম (ছাত্র-ছাত্রী ছাড়া বাকিদের জন্য):

–      সাধারন ক্ষেত্র বলতে বোঝানো হচ্ছে জার্মানীতে পড়াশোনার উদ্দেশ্যে যারা যেতে যাচ্ছেন তারা ছাড়া বাকিরা।

–      সত্যায়িত করনের জন্য জার্মান এম্বেসীর ভিসা সেকশনে মূলকপির সাথে সংশ্লিষ্ট অনুলিপিগুলো জমা দিতে হবে

–      সপ্তাহের প্রত্যেকদিন নয় বরং রবি থেকে বৃহস্পতি – প্রতিদিন দুপুর ১:৩০ থেকে ২:০০টা পর্যন্ত সত্যায়িত করার জন্য ডকুমেন্ট জমা নেয়া হয়। ( এম্বেসী ছুটির দিনে কাউন্টার বন্ধ থাকে বিধায় ঐদিন কোন ডকুমেন্ট গ্রহন করা হয় না)

–      ফী সাধারনত নির্ভর করে ডকুমেন্টের পৃষ্ঠা সংখ্যা আর ডকুমেন্টগুলো কোন ভাষায় লিখিত তার উপর।

–      তবে সর্বনিম্ন ফী হচ্ছে ১০ ইউরো যা টাকায় পরিশোধ যোগ্য। এম্বেসীর ‘পে অফিস’ কর্তৃক নির্ধারিত এক্সচেঞ্জ রেট এক্ষেত্রে কার্যকরী হবে।

 ছাত্রছাত্রীদের জন্য ডকুমেন্ট সত্যায়িত করনের নিয়ম কানুনঃ

–      এই প্যরাগ্রাফটি তাদের উদ্দেশ্যেই যারা জার্মানীর কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বা ল্যাংঙ্গুয়েজ স্কুলে ‘অফার লেটার’ পাবার জন্য আবেদন করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন এবং আবেদন পত্রের অন্যান্য কাগজপত্রের সাথে বিভিন্ন ডকুমেন্ট বা সার্টিফিকেটের সত্যায়িত কপি জমা দেয়া কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আর এরাই জার্মানীতে ভর্তি সংক্রান্ত ব্যাপারে ডকুমেন্টগুলো সত্যায়িত করতে চাইলে তা কোন চার্জ বা ফী দেয়া ছাড়াই এম্বেসীর পক্ষ থেকে করে দেয়া হবে।

–      তবে এক্ষেত্রে তাদের একটি অতিরক্ত ফর্ম পূরণ করতে হবে যার মাধ্যমে ভর্তিচ্ছু ছাত্র-ছাত্রীরা এটা দেখাবে যে এই সত্যায়িতকরন তাদের ভর্তির জন্য অবশ্য প্রয়োজনীয় বা বাধ্যতামূলক ।

–      ভর্তি সংক্রান্ত যেই ওয়েবসাইটে সত্যায়িত কপি জমা দেবার কথা বলা আছে – সেই ওয়েব সাইটের ওয়েব এড্রেস উপরে উল্লেখিত ফর্মের নির্ধারিত Website চিহ্নিত খালি ঘরে জুড়ে দিতে হবে। অন্যান্য সব ডকুমেন্টের সাথে উক্ত ওয়েবপেইজের প্রিন্ট আউট কপিও সংযুক্ত করে দিতে হবে। আর ওয়েব পেইজের প্রিন্ট আউট টা কোন ধরনের ফর্মেটে হবে তার উদাহরন দেখুন এখানে

–      ফর্মটি হাতে পূরণ না করে বরং কম্পিউটারে পূরণ করে প্রিন্ট করে দেবার কথা এম্বেসীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

–      রবি থেকে বৃহস্পতি প্রতিদিন সকাল ৯:০০ টা থেকে বেলা ১১:০০ টা পর্যন্ত এম্বেসীর মেইনগেইটে  সত্যায়িত করার জন্য যাবতীয় ডকুমেন্ট জমা নেয়া হয়। বলাই বাহুল্য এম্বেসী বন্ধের দিন কোন প্রকার ডকুমেন্ট গ্রহণ করা হয় না।

–      ওভার অল ভেরিফিকেশনের জন্য যার ডকুমেন্ট তাকে নিজে এম্বেসীতে এসে সত্যায়িত করার জন্য ডকুমেন্ট জমা দিতে হবে। ডকুমেন্টের সাথে উক্ত ফর্ম আর ফর্মের সাথে পাসপোর্ট ও পাসপোর্টের ফটোকপি আনতে হবে।

–      প্রতিজনের জন্য সর্বোচ্চ পাঁচ সেট করে কপি সত্যায়িত করা হয়।

–      সত্যায়িতকরনের জন্য এম্বেসী সাধারনত পাঁচ থেকে দশ কর্মদিবস সময় নিয়ে থাকে। আর উপর্যুক্ত নিয়ম কানুনগুলোর কোন বিচ্যুতি ঘটলে সেইক্ষেত্রে এম্বেসি আপনার কাগজ পত্র সত্যায়িত না করেই ফেরত দিতে পারে।

এম্বেসীর সাথে যোগাযোগঃ

– কোন কারনে আপনাকে যদি জার্মান এম্বেসীর সাথে যোগাযোগ করতে হয় তাহলে এই অনালাইন ফর্ম ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই তাদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করতে পারেন।

পাসপোর্ট ‘রেডী ফর পিক আপঃ’

জার্মান এম্বেসী এখানে ভিসা নাম্বারের পরিপ্রেক্ষিতে শুধু মাত্র লং টার্ম ও জার্মান নাগরিকদের পাসপোর্টের তালিকা প্রকাশ করছে যেগুলো রেডী ফর পিক আপ।

 

জার্মান এম্বেসীতে ছবির রিকোয়ারমেন্টঃPassbild_Teaserbild

–      স্যাম্পল ছবি

–      পূর্নবয়স্কদের ছবির গ্রহনযোগ্য মাপ

–      শিশুদের ছবির  গ্রহনযোগ্য মাপ 


বাংলাদেশ ভ্রমনঃ

যার্দের বাংলাদেশে ভ্রমনের জন্য ভিসা প্রয়োজন তাদেরকে বার্লিনে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে আবেদন করতে হবে।

Biometrie_reisepass_deutsch

বাড়তি ইনফর্মেশনঃ
আরো ইনফর্মেশনের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন নীচের সাইটগুলোতে।
জার্মানীতে প্রবেশ (জার্মান ভাষায়)
– যেসব দেশের নাগরিকদের জার্মানীতে প্রবেশ করতে ভিসার প্রয়োজন হবে (ইংরেজী ভাষায়)
জাতীয়তা ও নাগরিকত্ব (ইংরেজী ভাষায়)

( এই পোস্টে আমি মূলত এই পেজটির http://www.dhaka.diplo.de/Vertretung/dhaka/en/02/0Einreise__Hauptbereich.html ভাবানুবাদ করার চেষ্টা করেছি।  পোস্টের বক্তব্যগুলো নিজ দায়িত্বে ব্যবহার করুন। আর আপডেটেড ইনফর্মেশনের জন্য নিয়মিত মূল পেজটি ভিজিট করুন।)

সবাইকে ধন্যবাদ।

অনুবাদঃ মোহাম্মদ শামসুল আরেফীন

Print Friendly, PDF & Email