ভিসা ইন্টারভিউ অভিজ্ঞতা। শাহী রায়হান সাজু, ২০১৬

 

গত কিছুদিন ধরে বিসাগে পোস্টকৃত ভিসা সাক্ষাৎকার অভিজ্ঞতা গুলো দেখে ১ টা বিষয় নিশ্চিত হয়েছিলাম যে এবার ভিসা সাক্ষাৎকারে খুব কড়াকড়ি হচ্ছে, যার প্রধান কারন হল ব্যাচেলর কোর্সগুলো থেকে প্রচুর পরিমানে প্রশ্ন করা হচ্ছে………… বিশেষ করে ১ জন মহিলা ভিসা কর্মকর্তা এহেন অমানবিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছেন ।

প্রচণ্ড ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম এই ভেবে যে এতদূর কষ্ট করে এসে না জানি আবার তীরে এসে তরী ডোবার মত অবস্থা হয়…………………………………..!!!
হাতে সময় মাত্র ৭ দিন, এক দৌড়ে নীলক্ষেত থেকে ৩ টা বই কিনে আল্লাহর নাম নিয়ে পড়া শুরু করলাম……………………………………

বিসাগে প্রকাশিত ভিসা সাক্ষাৎকারের সম্ভাব্য প্রশ্ন এবং তার সাথে বিভিন্ন জনের অভিজ্ঞতা থেকে সংগ্রহীত প্রায় ১৫০ টার মত প্রশ্নের তালিকা তৈরি করলাম সাথে ব্যাচেলরের মেজর এবং যে কোর্সে যাচ্ছি সেখান থেকে প্রায় ৬৫ টার মত মৌলিক প্রশ্ন খুঁজে বের করে মুখস্থ করে ফেললাম সাথে টেনশন মিশ্রিত দোয়া করতে থাকলাম……আল্লাহ এবারের মত ওই মহিলার খপ্পর থেকে আমারে বাঁচাও ………………!!!!!!!!
বিশ্বাস করেন ৭ দিনে যে পরিমান পরাশুনা করেছি সে পরিমান পরাশুনা করলে হয়ত ব্যাচেলরে ১ম শ্রেনিতে ১ম হতাম কোন সন্দেহ নাই……………………………………………………………………………

যাহোক,আবির্ভূত হল সেই কাঙ্ক্ষিত দিন………আগে থেকেই সব গোছানো ছিল ।আগের রাতে ঘড়িতে সকাল ৭ টায় অ্যালার্ম দিয়ে ঘুমালাম । ১ মহিলা দৈত্যকে সপ্নে দেখে ঘুম থেকে লাফ দিয়ে উঠে ঘড়ি দেখি… মাত্র ভোর ৪.৩০ টা । তারপর আর ঘুমাতে পারিনি……………..

৮.৩০ টায় সিএনজি যোগে রওনা দিলাম ছোট ভাই আল-আমিনকে নিয়ে । সেদিন আবার কেরি সাহেবের আগমন ঘটেছিল( উটকো ঝামেলা আর কি ) । রাস্তায় প্রচণ্ড জ্যাম । ১০.১৫ টায় এমব্যাসিতে পৌছালাম । ঢুকতে দিল ১০.৩০ টায় ।

ভিতরে ঢোকার কিছুক্ষন পরেই তালিকা অনুসারে ডকুমেন্ট গুলো সাজিয়ে ৩ সেট করতে বলা হল…………………………………………… ইতোমধ্যেই খবর আসল “মালেকা হামিরা” ৩ নং কাউন্তারে………!!!! আলাহ আল্লাহ করলাম ৩ নং এ যেন না পরি । ১ ও ২ নং থেকে পুরুষ ভিওর কণ্ঠ ভেসে আসল । হঠাৎ দেখি ৩ নং থেকে ১ আপু বের হয়ে আসল । হুম্রি খেয়ে তাকে জিজ্ঞেস করলাম ৩ নংএ কি মহিলা নাকি পুরুষ ? উনি বললেন মহিলা তো দেখলাম না !!!!! কথাটা শুনে সবার সামনে জন্মদিনের ড্রেস পরে নাচতে ইচ্ছে করল(পিঃ পিঃ পিঃ)টেনশন বিদায় নিল । ১১.৪৫ এর দিকে আমার ডাক আসল ১ নং থেকে । শুরু হল আমার জীবনের প্রথম ভিসা সাক্ষাৎকার……………………………………

ME: may I come in sir ?
VO: Yes come in………(somewhat bald headed young guy)
Me: Stood still like a Robot

VO: Which course are you going to ?(আমার ডকুমেন্টস দেখতে দেখতে)
ME: Master of Arts in Development Economics & International Studies sir( চোখে চোখ রেখে)

VO: Which University ?
ME: Friedrich Alexander University Erlangen-Nurnberg
VO: Asked again……………Erlangen ?(দেয়ালে লাগানো ১ টা তালিকা দেখতে দেখতে )
ME: Yes sir

VO: Which year did you pass your HSC ?
ME: In 2005 (এটা শুনে মনে হয় ভয় পাইছে, হয়ত আমিই তার সিনিওর হা হা হা হা )

VO: In which year did you pass your Bachelor ?
ME: In 2013 sir, my result was published on 21st of Nov,2013

VO: What was your HSC result ?
ME: তারে কইছি কিন্তু আপনাদের কমুনা !!!!!!!!!!!!!!!!!

VO: And Bachelor ?
ME: 3.07 out of 4.00

VO: From which University ?
ME: Jagannath University, Dhaka

VO: What is your IELTS score ?
ME: Overall 7.00 sir

Then he gave me a tissue paper & asked me to clean all of my fingers (মনে করছে আমি বোধয় টয়লেট শেষে কনদিন লাইফবয় দিয়ে হাত ধুইনি !) and took my finger prints .
Then he gave me a Bank receipt (I became Everest conqueror) but not my original docs(my face again turned into………!!!!) and told me to come back after Bank deposit .
টাকা জমা দিয়ে আসার সময় মনে মনে ভাবলাম এট বোধয় চা-পানের বিরতি দিছে,আসার পর স্লগ ওভার শুরু করবে….!!!!!!! আল-আমিনকে জিজ্ঞেস করলাম ১ টা বাজতে আর কয়টা বাকি, সে বলল ১৩ মিনিট। ভাবলাম একটু ধিরে হ্যাঁটি যাতে বেশি প্রশ্ন করার সময় না পায় কারন ১ টা বাজলে তো ডকুমেন্ট সত্যায়িত করার কাজ শুরু হবে হা হা হা !
ফিরে এসে ব্যাংক স্লিপ জমা দিলাম…………………………………………..

VO: What’s your name…………..
ME: Answered………………(খাইছে সত্য সত্যই তো আবার শুরু করছে)
But he made me surprised & returned my originals & said “you may go”

Then I asked him query regarding my supplementary form & finally I asked……………… Can I expect to get my Visa in time sir ?
VO: I think you will get (with a smiling face)

গত ৫ বছরে এত খুশি মনে হয় কোন দিন হই নি……………………… যদিও ফেরার পথে ভিও আমাকে ফোন দিয়ে বলে আপনি তো ছবি দিয়েছেন ১ কপি,আরেক কপি ছবি আজ-কালের মধ্যে দিয়ে যাবেন যদিও আমি ছবি ২ টাই দিছি,মনে হয় গার্ড মহিলাটা আমার ডকুমেন্ট নিয়ে যাবার সময় ফেলে দিয়েছে,আজ গিয়ে আবার ছবি দিয়ে এসেছি । আজ আবার এমব্যাসি তে যওয়ার পর ১ জনের সাথে দেখা হল,মাত্র বের হয়েছে……… কেমন হল জানতে চাইলে সে বলল খুবই সহজ, তেমন কোন প্রশ্নই করেনি ……………………………………………………………
সেদিন আমরা মোট ৩ জন ছিলাম, সবার অভিজ্ঞতাই অনেক ভালো ।

যারা ভিসা ফেস করবেন তাদের উদ্দেশ্যে ১ টা পরামর্শই থাকবে আমার তরফ থেকে—যথেষ্ট প্রস্তুতি নিয়ে যান,আশা করি আপনাদের সাক্ষাৎকার ও সহজ হবে। শুভ কামনা রইল সবার জন্য……………………………………

পরিশেষে…………আমার জন্য দোয়া করবেন যেন সময় মত ভিসা পাই ।

 

লিখেছেন- শাহী রায়হান সাজু

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ।

——————–

জার্মানিতে উচ্চশিক্ষা ও ক্যারিয়ার বিষয়ক তথ্যের জন্য যোগ দিন বিসাগ ফেসবুক গ্রুপ- বিসাগ ফেসবুক গ্রুপ

বিসাগের অন্যান্য সোস্যাল মিডিয়া পেইজে আপডেট পেতে সাথে থাকুন-

বিসাগ ফেসবুক পেইজ- https://www.facebook.com/bsaag/

বিসাগ- উচ্চশিক্ষায় জার্মানি বিষয়ক পেইজ- https://www.facebook.com/bsaag.page/

বিসাগ- জার্মান ভাষা শিক্ষা বিষয়ক পেইজ- https://www.facebook.com/deutsch.bsaag/

ট্যাগ- #BSAAG_VISA_Interview

#BSAAG_Masters

Print Friendly, PDF & Email

ফেসবুক মন্তব্যঃ

Leave a Reply