• Home »
  • Masters »
  • ভিসা ইন্টারভিউ অভিজ্ঞতা। হাবিবা আকতার, ২০১৬

ভিসা ইন্টারভিউ অভিজ্ঞতা। হাবিবা আকতার, ২০১৬

 

২৫শে আগস্ট, ২০১৬ তারিখে হাবিবা আকতার এর ভিসা ইন্টারভিউয়ের অভিজ্ঞতা।

তার কাছেই শুনুন –

পুর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী এম্ব্যাসিতে যেয়ে সিকুয়েন্স অনুযায়ী ডকুমেন্ট জমা দেওয়ার পর ৪৫ মিনিট অপেক্ষা শেষে আমার নাম এবং কাউন্টার নাম্বার ঘোষণা করলো। কাউন্তার নাম্বার তিনে যাওয়ার পর ভাইভা অফিসার ডকুমেন্টগুলো ফেরত দিয়ে চেক করে নিতে বলল। তারপর আমাকে প্রশ্ন করতে শুরু করল-

অফিসার: আপনার এইসএচসি কত সালে?

আমি: এইচ এস সি নাকি এস এস সি? (আমি তার কথা ভালোভাবে শুনিনি কারণ মাইক্রোফোন থেকে কিছুটা দুরে ছিলেন)

অফিসার: এইচ এস সি।

আমি প্রশ্নের উত্তর দিলাম।

এরপর অফিসার আমার রেজাল্ট জানতে চাইলেন এবং আমি বললাম।

এরপর অফিসার আমার ব্যাচেলর ডিগ্রি সম্পর্কে বিভিন্ন প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করলেন, আমি সেগুলোর উত্তর দিলাম।

অফিসার: ব্যাচেলর কি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে?

আমি: হ্যাঁ

অফিসার: কোন কলেজ?

আমি প্রশ্নের উত্তর দিলাম।

অফিসার: আপনি পদার্থ বিজ্ঞানে ব্যাচেলর করেছেন, তাই কি?

আমি: হ্যাঁ

অফিসার: সেকেন্ড ক্লাস?

আমি: হ্যাঁ

অফিসার: কত পার্সেন্ট নম্বর পেয়েছেন?

আমি উত্তর দিলাম

এরপর তিনি কিছুক্ষণ আমার ব্যাচেলরের সার্টিফিকেট দেখলেন এবং আবারও প্রশ্ন করা শুরু করলেন-

অফিসার: কোয়ান্টাম থিওরি কী?

আমি এই প্রশ্নের উত্তর দিলাম।

অফিসার: ফোটন কী?

আমি এই প্রশ্নেরঅ উত্তর দিলাম, তবে এখানে আমি কিছুটা কনফিউজড ছিলাম। অফিসার আমার উত্তর বুঝতে না পারায় আবারও জিজ্ঞাস করলো ফোটন কী। এরপর একে একে আমাকে

কাইনেটিক এনার্জি, ক্যালকুলাস, E=mc^2, নিউটনের সূত্র প্রভৃতি বিষয়ে প্রশ্ন করলেন। এর বাইরেও তিনি আমাকে সাবজেক্ট রিলেটেড কিছু প্রশ্ন করেছিলেন। সবগুলো প্রশ্ন মনে নাই, তবে আমি সবগুলোরই উত্তর দিয়েছি।

এরপর আবার তিনি আমাকে অন্যান্য প্রশ্ন করলেন। প্রশ্নগুলো ছিল-

ব্যাচেলর সম্পন্ন করার পর আপনি কী করেছেন?

সেখানে আপনার কাজ কী ছিল?

পড়ালেখা শেষ করার পর কী করবেন?

জার্মানিতে আপনার পরিচিত কেউ আছে?

এরপর তিনি আমার আঙ্গুলের ছাপ নিলেন এবং ২৮ তারিখে গিয়ে টাকা জমা দিয়ে আসতে বললেন (কারণ সেদিন ব্যাংক বন্ধ ছিল)।

একটু পর আমি আবার গিয়ে তাকে জিজ্ঞেস করলাম-

আমার বাবা যদি এসে টাকা জমা দিয়ে যান তাতে কোনো সমস্যা হবে?

অফিসার: না, সমস্যা নেই

এরপর আমি আবার তাকে বললাম- আমি কি আপনাকে একটা প্রশ্ন করতে পারি?

অফিসার: অবশ্যই

আমি: ৪ অক্টোবর থেকে আমার ক্লাস শুরু হয়ে যাবে।

ভিসা প্রসেসিংয়ের জন্য কতদিন সময় লাগতে পারে?

অফিসার: আগে টাকাটা জমা দিন এবং ব্লক অ্যাকাউন্টের বাড়তি টাকাটা জমা দিন, তারপর প্রসেসিং শুরু হবে।

আমি: আমি ইতোমধ্যেই ব্লক অ্যাকাউন্টের বাকি টাকা জমা দিয়েছি, তবে এখনও কনফার্মেশন পাইনি। যখন আমি কনফার্মেশন পাবো, তখন আমার করনীয় কী?

এরপর ভিসা অফিসার আমাকে বাংলায় সবকিছু বুঝিয়ে বলল। মাইক্রোফোন থেকে কিছুটা দূরে থাকায় তার কথা বুঝতে আমার সমস্যা হচ্ছিল এবং বারবার রিপিট করতে হচ্ছিল। এজন্য তিনি হয়তো আমার প্রতি কিছুটা বিরক্ত ছিলেন তবে অনেক নরম ভাষায় কথা বলেছেন।

পুরো ইন্টারভিউটা ছিল ১৭-২০ মিনিটের।

 

হাবিবা আকতার।

সরকারী তিতুমীর কলেজ, ঢাকা।

—————————-

এই ছিলো হাবিবা আকতারের ভিসা ইন্টারভিউয়ের অভিজ্ঞতা।

পোস্টটি ইংরেজী থেকে বাংলায় অনুবাদকৃত।

কৃতজ্ঞতাঃ শাহাদাত হোসেন,

স্বেচ্ছাসেবী -বিসাগ বাংলাদেশ।

 

জার্মানিতে উচ্চশিক্ষা ও ক্যারিয়ার বিষয়ক তথ্যের জন্য যোগ দিন বিসাগ ফেসবুক গ্রুপ- বিসাগ ফেসবুক গ্রুপ

বিসাগের অন্যান্য সোস্যাল মিডিয়া পেইজে আপডেট পেতে সাথে থাকুন-

বিসাগ ফেসবুক পেইজ- https://www.facebook.com/bsaag/

বিসাগ- উচ্চশিক্ষায় জার্মানি বিষয়ক পেইজ- https://www.facebook.com/bsaag.page/

বিসাগ- জার্মান ভাষা শিক্ষা বিষয়ক পেইজ- https://www.facebook.com/deutsch.bsaag/

ট্যাগ- #BSAAG_VISA_Interview

#BSAAG_Masters

Print Friendly, PDF & Email