ফ্রাঙ্কফুর্ট বিশ্ববিদ্যালয়

 

ফ্রাঙ্কফুর্ট বিশ্ববিদ্যালয়টি বা গ্যোটে ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠিত করা হয় ১৯১৪ সালে, বেসরকারীভাবে৷ এর পর থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়টি গবেষণা এবং পড়াশোনার দিক দিয়ে নিজেকে নিয়ে যায় শীর্ষস্হানে৷

ফ্রাঙ্কফুর্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের লনে বসে অধ্যায়নে ব্যস্ত শিক্ষার্থীরা

১৯৩২ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয়টির নামকরণ করা হয় ফ্রাঙ্কফুর্টের সবচেয়ে জনপ্রিয় নাগরিক ইয়োহান ওল্ফগাং গ্যোটের নামানুসারে৷ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এই বিশ্ববিদ্যালয়টি হারায় প্রচুর ছাত্র-ছাত্রী সাথে এত তৃতীয়াংশেরও বেশী অধ্যাপক৷ নাৎসী সরকার বন্ধ ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয়টির. ১৯৪৬ সালে আবার খুলে দেয়া হয় বিশ্ববিদ্যালয়টি৷

ফ্রাঙ্কফুর্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমান ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা ৩৩ হাজারেরও বেশী তার মধ্যে আছে চার হাজার বিদেশী ছাত্র-ছাত্রী৷ ছয়শোর ও বেশী প্রফেসর অধ্যাপনা করছেন, গবেষণায় প্রতিনিয়ত ছাত্র-ছাত্রীদের সাহায্য করে যাচ্ছেন দু হাজারেরও বেশী মানুষ এবং প্রশাসনিক কাজে নিয়োজিত আছে আরো দেড় হাজার মানুষ৷

সবমিলে ১৬টি বিভিন্ন অনুষদ নিয়ে গঠিত ফ্রাঙ্কফুর্ট বিশ্ববিদ্যালয়৷ ১৬টি অনুষদের অধীনে আছে ১৭০ টিরও বেশী বিভিন্ন বিষয় পড়াশোনার সুযোগ৷ ১৬টি অনুষদের মধ্যে আছে আইন, অর্থনীতি, সমাজ বিজ্ঞান, মনোবিজ্ঞান, দর্শন এবং ইতিহাস, আধুনিক ভাষাতত্ব, পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন, ফার্মাসিউটিক্যালস এবং মেডিক্যাল সায়েন্স এবং আরো বেশ কয়েকটি অনুষদ৷

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার জন্য আবেদন পত্র পাঠানোর শেষ তারিখ শীতকালীন সেমিস্টারের জন্য ১৫ই জুলাই এবং গ্রীষ্মকালীন সেমিস্টারের জন্য ১৫ই জানুয়ারী৷ শীতকালীন সেমিস্টারের সময়সীমা ১লা অক্টোবর থেকে ৩১ শে মার্চ পর্যন্ত এবং গ্রীষ্মকালীন সেমিস্টারের সময়সীমা ১ লা এপ্রিল থেকে ৩০ শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত৷ নির্ধারিত সময়ের আগে আবেদন পত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে না পৌছালে আবেদন পত্র বাতিল হবার সম্ভাবনা অনেক বেশী৷ বলে রাখা ভাল ২০০৬ সাল থেকে আবেদন পত্রের সাথে নির্দিষ্ট পরিমাণ একটি ফি প্রদানের ব্যবস্হা করা হয়েছে তা হল প্রতিটি আবেদন পত্রের সাথে ৫০ ইউরো অর্থাৎ ২৭৫০ রুপি বা ৩৯০০ টাকা প্রদান করতে হবে৷ এই ফি দিতে হবে ইউনি এসিস্টের মাধ্যমে৷

পি এইচ ডি করতে হলে আবেদনকারীকে অবশ্যই নিজ দেশের যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অন্তত পক্ষে স্নাতক হতে হবে এবং থিসিস লেখার বিষয়ে যথেষ্ট অভিজ্ঞ হতে হবে৷ পি এইচ ডি র জন্য জার্মান প্রফেসরের অনুমোদন অত্যাবশ্যকীয়৷ জার্মান প্রফেসর আবেদনকারীর রিসার্চ প্রপোজালে সন্তুষ্ট হলে তিনি নিজ থেকেই আবেদনকারীকে ছাত্র বা ছাত্রী হিসেবে গ্রহণ করে একটি চিঠি দেবেন৷ এর পর পি এইচ ডি কমিটির সাথে প্রফেসর নিজেই কথা বলবেন৷ তবে এ ক্ষেত্রে ছাত্র বা ছাত্রীকে অত্যন্ত মেধাবী হতে হবে৷ পি এইচ ডির সময়সীমা সাধারণত ৪ থেকে ৫ বছরের মত৷

গ্রাজুয়েশন প্রোগ্রামগুলো শেষ করতে সাধারণত ১০ থেকে ১৪ সেমিস্টারের প্রয়োজন অর্থাৎ ৫ থেকে ৭ বছর৷ সেই তুলনায় মাস্টার্সের প্রোগ্রামগুলো অনেক অল্প সময়ের৷ তা সাধারণত ৩ থেকে ৪ সেমিস্টার লাগে অর্থাৎ ১৮ মাস থেকে দু বছর৷

প্রতি বারের মত এবারেও জানিয়ে দিচ্ছি ইয়োহান ওল্ফগাং গ্যোটে বিশ্বিদ্যালয় বা ফ্রাঙ্কফুর্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে হলে জার্মান ভাষাটি অবশ্যই জানা থাকতে হবে৷ ভাষা শেখার বিষয়ে বিদেশী ছাত্র-ছাত্রীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারন্যশনাল স্টাডি সেন্টারও সাহায্য করতে পারবে৷ তবে কোন কোন বিষয়ে পড়তে হলে জার্মান ভাষায় বিশেষ কোন একটি পরীক্ষার ফলাফল জানতে চাওয়া হয়৷ যেমন ডি এস এইচ বা টেস্ট ডাফ৷ এই পরীক্ষাগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য আপনারা গ্যোটে ইন্সটিটিউটের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন৷ আপনাদের সুবিধার জন্য জানাচ্ছি দেশ থেকে ভাষা শিখে আসলে খরচ অনেক কম পড়বে এখানে ভাষা শেখার খরচ খুব বেশী৷ সর্বনিম্ন খরচ মাসে ১১০ ইউরো অর্থাৎ ৬ হাজার ৫০ রুপি বা ৮ হাজার ৫০০ টাকা৷

ফ্রাঙ্কফুর্টে অবস্হিত ইউরোপীয় সেন্ট্রাল ব্যংক যার করণে ফ্রাঙ্কফুর্টকে ইউরোপে ব্যাংকের রাজধানী বলা হয়৷ ২০০৬ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ খেলাও অনুষ্ঠিত হবে ফ্রাঙ্কফুর্টে৷ ফাউস্টের স্রষ্টা ইয়োহান ওল্ফগাং গ্যোটের শহর ফ্রাঙ্কফুর্ট, ইউরোপের ব্যাংকের রাজধানী ফ্রাঙ্কফুর্ট, ২০০৬ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলের শহর ফ্রাঙ্কফুর্ট৷

 

ফ্রাঙ্কফুর্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিকানা
International Office, Goethe University
60054 Frankfurt, Bockenheimer Landstrasse 133
Ground Floor, Room 2
Phone: +49 (0) 69 798 79 80
Email: international@em.uni-frankfurt.de অথবা international@uni-frankfurt.de

প্রতিবেদন   মারিনা জোয়ারদার
Print Friendly, PDF & Email