“ডিপ্লোমা করে ভিসা প্রাপ্তি “

 

অনেকেই রয়েছে যারা ডিপ্লোমা করে খুবই চিন্তিত, কারন হলো তারা কি জার্মানি তে অ্যাপ্লাই করতে পারবে কিনা অথবা অ্যাপ্লাই করলেও কিভাবে করতে হবে এবং ভিসা হবে কিনা।ডিপ্লোমা করে যারা জার্মানি গিয়েছে তাদের অভিজ্ঞতার অংশটুকুই এখানে তুলে ধরা হয়েছে মূলত।

ব্যাচেলরের যত কথা, ডিপ্লোমা প্রবলেম এবং কোর্স চেঞ্জ (বিবিএ-ইঞ্জিনিয়ারিং) সহ

ডিপ্লোমা করে ভিসা পেয়েছি,বিসাগ এ এই পোস্ট দেওয়ার পর কমেন্টস এবং ব্যক্তিগত  অনেক রিকুয়েস্ট ও টেক্সট আশা শুরু করে।এছাড়াও আমি পোস্টে কথা দিয়েছিলাম ডিপ্লোমা নিয়ে আমার অভিজ্ঞতা এবং ডিপ্লোমা প্রব্লেম নিয়ে বিস্তারিত পোস্ট করব।তাই আজ এই পোস্ট এর মাধ্যমে আমার অভিজ্ঞতা ও ডিপ্লোমা স্টুডেন্টস দের করনীয় তুলে ধরবো।

আমার অভিজ্ঞতা:
২০১৬ এর শুরুর দিকে জার্মান অবস্থিত বড় ভাইদের পরামর্শে জার্মান ভাষা শিক্ষা শুরু করি।একটা একটা ধাপ শেষ হচ্ছে আর তার সাথে বড় হচ্ছে স্বপ্ন গুলোও।
এর মধ্যে ডাড ওয়েবসাইট (www.daad.de) টি নিয়মিত দেখি এবং ইউনিভার্সিটি তে কথা বলি,ওরা বলছে জার্মানি তে ডিপ্লোমা গ্রহনযোগ্য।আর বিসাগ এ তো সবাই নিয়মিত বলতো ডিপ্লোমা গ্রহনযোগ্য।এই ভাবে দীর্ঘ ১ বছরের মাথায় জার্মান ল্যাংগুয়েজ বি-১ শেষ করি।তখনতো আনন্দে পুরো আত্মহারা।কারন দীর্ঘ এই চলার পথে বি-১ করার পর কাউকে খালি হাতে ফিরতে দেখিনি।সবাইকে দেখছি ভিসা পাইতে।

আবেদন করার ধাপঃ 

যাই হোক জার্মান ভাষা শিক্ষা বি-১ শেষ করার পর এবার ভার্সিটিতে আবেদন এর পালা।প্রথমে আমি আর আমার এক বন্ধু মিলে ২ টা ভার্সিটি তে আবেদন করি।ও দুটো ভার্সিটি থেকেই আফার লেটার পায়,কিন্তু আমাকে দুটোই রিজেক্ট করে।
আমাকে রিজেক্ট করার কারন ছিল ডিপ্লোমা তারা গ্রহন করে না।পরে জার্মান অবস্থিত ভাইয়া একটার কাছে আমার ডকুমেন্টস গুলা পাঠাই,উনি আমার জন্য একটা ভার্সিটি তে এপ্লাই করে।কিন্তু তাও রিজেক্ট করে দেয়।পরে আবার ইউনি-এসিস্ট এর মাধ্যমে ৭ টা ভার্সিটি তে এপ্লাই করি কিন্তু ইউনি-এসিস্ট ও একই কারনে রিজেক্ট করে।তখন খুবই হতাশ হয়ে পড়ি।এর মাঝে আমার সাথে আবেদন করা কিছু বন্ধু এমনকি আমার পরে পাশ করা ফ্রেন্ডরাও জার্মানিতে চলে যায়।কিন্তু আমার আর অফার লেটার পাওয়া হয় না।

এই ভাবে ১৭ টা ভার্সিটিতে এপ্লাই করা শেষ। ১ টা ভার্সিটি ছাড়া সব গুলোর রেজাল্টই রিজেক্ট।এই ভার্সিটি ও শিওর রিজেক্ট করবে এটা ধরে নিয়েই বাংলাদেশ এর একটা ভার্সিটিতে এডমিট হয়ে যাব চিন্তা করছিলাম।কারন অ্যাপ্লাই করার জন্য স্টুডেন্ট কলিগ এর আর তেমন ভার্সিটিও বাকি ছিল না।এই দিকে এপ্লাই এর ডেড লাইন ও শেষ হয়ে গেল।

মোটামুটি শিওর হয়ে গিয়েছিলাম,আমার আর জার্মান যাওয়া হচ্ছে না।কিন্তু না!আল্লাহ্‌র অশেষ রহমতে ঠিক ওই শেষ ইউনিভার্সিটি থেকেই অফার লেটার পেয়ে যাই।আর ঐ অফার লেটার দিয়েই এমব্যাসি ফেইস করে আজ আমি জার্মানিতে।

ডিপ্লোমা স্টুডেন্টস দের করনীয়:
আমার উপদেশ হবে যারা ডিপ্লোমা করে ব্যাচেলর এর জন্য জার্মানিতে আসতে চায়,তারা যেন ল্যাংগুয়েজ এর পাশাপাশি বাংলাদেশের একটা ভার্সিটিতেও এডমিট হয়ে যায়।তাহলে ল্যাংগুয়েজ শেষ হতে হতে ভার্সিটির হাফ-ক্রেডিট ও শেষ হয়ে গেল।তখন দেখা গেল স্টুডেন্ট কলিগ স্কিপ করে সরাসরি ভার্সিটিতে এডমিট হয়ে জার্মানিতে আসতে পারবেন।
(স্টুডেন্ট কলিগ কি?এবং পাশ করা কত কঠিন তা বিসাগ এর অন্য পোস্ট গুলা ফলো করলে জানতে পারবেন) আরো তথ্য জানতে স্টুডেন্টকলিগ ওয়েবসাইট দেখুন (www.studienkollegs.de/en/)

আর সবচেয়ে বড় কথা বি-১ শেষ করতে সাধারণত এক থেকে দেড় বছর লাগে।তাহলে এর মধ্যে তো ভার্সিটির অর্ধেক-ক্রেডিট ও শেষ হয়ে যাবে।আর তখন দেখা গেল আপনার হাতে দ্বিতীয় অপশনও তৈরি হয়ে গেল।আপনি তখন ডিপ্লোমা দিয়েও আবেদন করতে পারবেন,আবার ভার্সিটির অর্ধেক ক্রেডিট দিয়েও আবেদন করতে পারবেন।

আর যদি শুধু মাত্র ডিপ্লোমা দিয়েই এগিয়ে যান এবং জার্মান ভাষা বি-১ করার করার পর আবেদন করেন তখন দেখা গেল আপনি জার্মানির কোন ভার্সিটি থেকে অফার লেটার পেলেন না।তখন কি করবেন?আবার বাংলাদেশের ভার্সিটি শুরু করবেন??তখন তো আবার দেড়-দুই বছর পিছিয়ে যাবেন।

আর আমাকে শুধু মাত্র একটা ভার্সিটি অফার লেটার দিয়েছিল(রুহর ইউনিভার্সিটাট বখুম)। দেখা গেলো জার্মান ভাষা বি-১  শেষ করতে করতে যদি এই ভার্সিটিও ডিপ্লোমা বন্ধ করে দেয়,তখন কি করবেন???তাই আমি চাই না কেউ আমার মত এই রকম কঠিন মুহূর্তে পড়ুক।

যদি ভেবে থাকেন যে, উনার হয়ে গেছে আমার ও হয়ে যাবে এবং কষ্ট করে একইসাথে জার্মান ভাষা এবং ভার্সিটি নিয়মিত করতে পারবো না।এই ভেবে রিস্ক নিয়ে শুধু মাত্র ডিপ্লোমা নিয়ে এগিয়ে যান,তাতেও ওয়েলকাম।কারন এতে রিস্ক তো আপনারই।

আর যারা ডিপ্লোমা এবং ব্যাচেলর করে মাস্টার্স এ আসতে চান তাদের বলবো আবেদন করার সময় ডিপ্লোমার সার্টিফিকেট এর উপর একটা ইকুইভ্যালেন্ট সার্টিফিকেট অবশ্যই দিয়ে দিবেন (যাতে উল্লেখ থাকবে ডিপ্লোমা কোর্স টা এইচ.এস.সি এর সমমান)
এটা শুধু মাস্টার্স না…ডিপ্লোমা,ব্যাচেলর,মাস্টার্স সবার জন্যই অত্যাবশ্যক।কারন আপনাকে যে ভাবেই হোক বুঝাতে হবে ডিপ্লোমা কোর্স টা এইচ.এস.সি এর সমমান। #আর তা না হলে অফার লেটার পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই নগন্য।

পরিশেষে একটা কথাই বলবো,সবার মত ডিপ্লোমা ছাত্রছাত্রীদেরও সুযোগ আছে জার্মানিতে পড়াশুনা করার।শুধু প্রয়োজন সঠিক পথ দেখে এগিয়ে যাবার।

ভিসা প্রাপ্তিঃখন্দকার শাহাদাৎ রাকিব।

#BSAAG_Bachelor #BSAAG_Bachelors #BSAAG_Diploma #BSAAG_VISA

Print Friendly, PDF & Email

ফেসবুক মন্তব্যঃ

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.