• Home »
  • Featured »
  • ছাত্রছাত্রী এবং গবেষকদের জন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নতুন নিয়ম, ২০১৬

ছাত্রছাত্রী এবং গবেষকদের জন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নতুন নিয়ম, ২০১৬

 

বিদেশী ছাত্র ছাত্রী এবং গবেষকদের জন্য, বিশেষ করে যারা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের বাইরের দেশ থেকে আসছে, তাদের জন্য বেশ কিছু নতুন নিয়মের ঘোষণা দিয়েছে ইউ। এই নিয়মগুলোর মাধ্যমে ইউ-এর বাইরের ছাত্রছাত্রীদের জন্য বেশ কিছু সুযোগ সুবিধে দেয়া হয়েছে। উদ্দেশ্য মূলত যাতে করে এদের মেধাকে যতটা বেশি সম্ভব ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের ভেতরে ধরে রাখা।

নতুন আইনের প্রনয়ণ হয়েছে ২০১৬ এর মে মাস থেকে। এই নিয়মের মধ্যে থাকছেঃ

১। উচ্চশিক্ষায় আগত ছাত্রছাত্রী এবং গবেষকরা তাদের পড়া শেষ করে অন্তত ৯ মাস সময় ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে থাকার জন্য ভিসা পাবে। এই সময়ের মধ্যে তারা চাকরি খোঁজার পাশাপাশি নিজের ব্যবসা বা কোম্পানিও দাঁড় করানোর সুযোগ পাবে।

২। এই নয় মাস সময়ের মধ্যে ছাত্রছাত্রী এবং গবেষকরা তাদের ইচ্ছেমতন বাড়তি কোন ভিসা ছাড়াই ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের যেকোনো দেশে ভ্রমণ এবং অবস্থান করতে পারবে। শুধুমাত্র অন্য দেশে যাবার সময় তাদেরকে বর্তমান দেশের ফরেন অফিসে জানিয়ে যেতে হবে।

৩। পড়াশোনা চলাকালীন সময়ে ছাত্রছাত্রীরা সপ্তাহে অন্তত ১৫ ঘন্টা করে কাজ করার সুযোগ পাবে।

৪। গবেষকরা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে আসার সময় তাদের পরিবার নিয়ে আসতে পারবেন এবং তাদের স্পাউসরা পুরো অবস্থানকালীন সময় জুড়েই কাজ করার অনুমতি পাবেন। এই নিয়ম সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের জন্য প্রযোজ্য নয়।

উল্লেখ্য, জার্মানিতে ছাত্রছাত্রীরা ইউ-এর এই নিয়মের আগেই পড়া শেষ করার পরে ছাত্রছাত্রীরা ১৮ মাস থাকার সুযোগ পাচ্ছে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নতুন আইনের কারণে জার্মানির নিয়মের কোন পরিবর্তন হবে না, কেননা ইউ শুধুমাত্র নিম্নসীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে। ইউ-এর দেশগুলো চাইলে নিজেরা তারচেয়ে শিথিল নিয়ম করতে পারে (যেমন জার্মানি), কিন্তু এর চেয়ে কঠিন অর্থাৎ কম সময়ের জন্য ভিসা দিতে আর পারবে না।

এই নতুন নিয়ম আরেকবার মনে করিয়ে দিচ্ছে যে, বিদেশী মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের জন্য ইউরোপ ধাপে ধাপে সহজ এবং উন্মুক্ত হচ্ছে।

আদনান সাদেক, ০১.০৬.২০১৬

#BSAAG_Articles

 

Print Friendly, PDF & Email