• Home »
  • Laws-Regulations »
  • অভিবাসী ছাড়া জার্মানির অর্থনৈতিক উন্নতি সম্ভব নয়

অভিবাসী ছাড়া জার্মানির অর্থনৈতিক উন্নতি সম্ভব নয়

 

ইউরোপের বৃহত্তম অর্থনৈতিক শক্তিশালী দেশ জার্মানি৷ এ দেশের ‘ওয়ার্কিং এজ পপুলেশন’ (কর্মজীবী জনসংখ্যা) ২০৩০ সালের মধ্যে ৬৩ লাখ কমে যাবে৷ বর্তমানে দেশটির জনসংখ্যা ৮ কোটি ২০ লাখ, ২০৬০ সালে যেটা কমে হবে সাড়ে ছয় বা ৭ কোটি৷

0,,17082312_303,00

 

কোলনভিত্তিক আইডাব্লিউ ইনস্টিটিউট এরই মধ্যে জানিয়ে দিয়েছে এর ফলে প্রতিবছর ২২ বিলিয়ন ইউরো হাতছাড়া হচ্ছে জার্মানির৷ তাই নীতিনির্ধারকরা এ ব্যাপারে সরকারকে এরই মধ্যে সতর্ক করেছেন৷

জার্মানিতে গণিত বা অঙ্ক, কম্পিউটার, বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি – এ সব চাকুরি ক্ষেত্রে যোগ্য প্রার্থী পাওয়া খবই দুষ্কর হয়ে উঠছে৷ জার্মানিতে এখন বেকারত্বের হার মাত্র ৬.৬ শতাংশ, যেখানে ইউরোপের অন্যান্য দেশে তা ৯.৩ শতাংশ৷

ফলে জার্মানিতে যেসব অভিবাসী আছেন, প্রতিভা ও যোগ্যতার কারণে বেশিরভাগ পদে স্থান হচ্ছে তাদের৷ কিন্তু এমন লাখো কোম্পানি রয়েছে যারা জার্মানদের প্রাধান্য দেন, কিন্তু ১০ জনের পদে ৬ জনের বেশি যোগ্য প্রার্থী পান না৷

হানসগ্রোহেস-এর মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান টমাস এগেনটার জানালেন, ২০ বছর আগে যোগ্য চাকুরি প্রার্থীরা দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াতো, আর আজ আমরাই যোগ্য প্রার্থীদের খুঁজে বেড়াই৷

২০৬০ সাল নাগাদ এই সমস্যাটি আরো প্রকট হবে৷ কেননা বর্তমানে একজন অবসরপ্রাপ্ত কর্মীর জায়গায় গড়ে প্রায় ২.৩ জন কর্মী রয়েছে, কিন্তু ২০৬০ সালে তা দাঁড়াবে ১.৩ জনে৷ এছাড়া ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় জার্মানিতে জন্মহারও বেশ কম৷ এদিকে, রাজনীতিবিদরাও জন্মহার বাড়ানোর জন্য তেমন কোনো নীতি নির্ধারণ করছেন না৷ অবশ্য ২০০৫ সালে চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল নতুন মা’দের বাসায় থেকে সন্তানদের লালন পালনের জন্য অনেক সুযোগ সুবিধা দেয়ার পরিকল্পনা করলে তা ব্যাপক সমালোচিত হয়৷ সমালোচকরা বলেছিলেন, এর ফলে কর্মক্ষেত্র থেকে নারীদের দূরে রাখার পরিকল্পনা হচ্ছে৷ এছাড়া ম্যার্কেল অবসরের বয়স ৬৭ করতে চেয়েছিলেন, যা পরে শরীক দলগুলোর চাপে ৬৩ করা হয়৷

অর্থনীতিবিদ ডেভিড ম্যাকি বলেছেন, ‘‘জার্মানিতে জন্মহার না বাড়লে অভিবাসীদের ছাড়া জার্মান শ্রমবাজারে ধস নামবে৷”

বার্লিনের পপুলেশন অ্যান্ড ডেভেলাপমেন্ট ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক স্টেফান সিফার্ট বলেছেন, ‘‘‘ওয়ার্কিং এজ পপুলেশন’ বা কর্মক্ষম মানুষের সংখ্যা সঠিক রাখতে হলে জার্মানিতে ২০৫০ সাল নাগাদ প্রতিবছর অভিবাসীদের সংখ্যা হতে হবে ৩ লাখ৷ গত বছর জার্মানিতে অভিবাসী আসার সংখ্যা ছিল ৪৬০,০০০ এবং এ বছর তা ৫ লাখে দাঁড়াবে বলে জানান৷ দক্ষ এবং যোগ্য শ্রমিক ও শিক্ষার্থীদের ব্লু কার্ড দেয়া হলেও সেই পদ্ধতি দক্ষ জনশক্তি গড়তে খুব একটা সাহায্য করছে না৷

 

সংকলনঃ শফিকুর রহমান

সুত্রঃ ডয়েচ ভেলে বাংলা

Print Friendly, PDF & Email