এক-তৃতীয়াংশ পূর্ব জার্মানদের মনোভাব

 

জার্মানিতে বসবাসরত বিদেশিদের প্রতি সাধারণ জার্মান নাগরিকদের মনোভাব জানতে একটি সমীক্ষা চালায় ফ্রিডরিশ এবার্ট ফাউন্ডেশন৷ তাতে বেরিয়ে এসেছে বেশ কিছু চমকপ্রদ তথ্য৷

সোমবার প্রকাশিত ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়, জার্মানির পূর্বাঞ্চলে বসবাসকারী ৩৯ শতাংশ জার্মান নাগরিক বিদেশিদের শত্রু বলে মনে করে৷ অর্থাৎ প্রতি তিনজনের মধ্যে একজনেরও বেশি জার্মান এই মনোভাব পোষণ করেন৷ গত দশকের তুলনায় এই হার ৩০ শতাংশ বেড়েছে বলে সমীক্ষাটি থেকে জানা যায়৷

তবে পূবের তুলনায় পশ্চিমে কম সংখ্যক মানুষ বিদেশিদের সম্পর্কে নেতিবাচক মনোভাব পোষণ করেন৷ সেখানে হারটা ২২ শতাংশ৷

এদিকে, জার্মানির পূর্বাঞ্চলের প্রায় অর্ধেক নাগরিকের ধারণা, অন্য দেশের তুলনায় জার্মানিতে সামাজিক সুযোগ-সুবিধা বেশি বলেই বিদেশিরা জার্মানিতে আসছেন৷ পুরো জার্মানি হিসেব করলে সংখ্যাটা ৩১ শতাংশ৷

উল্লেখ্য, জার্মানিতে অনেক দিন ধরেই তুরস্ক থেকে আসা অভিবাসীদের বাস৷ এছাড়া সমস্যাগ্রস্ত দক্ষিণ ইউরোপ এবং অপেক্ষাকৃত দরিদ্র অঞ্চল পূর্ব ইউরোপের দেশগুলি থেকেও লোকজন জার্মানিতে আসছে ভাগ্য অন্বেষণে, তার উন্নয়নে৷

সমীক্ষা পরিচালনাকারী সংস্থা ফ্রিডরিশ এবার্ট ফাউন্ডেশন-এর সঙ্গে জার্মানির রাজনৈতিক দল সামাজিক গণতন্ত্রী বা এসপিডি’র সম্পর্ক রয়েছে৷

‘দ্য মিডল ইন আপহিভ্যাল – ফার রাইট অ্যাটিটিউডস ইন জার্মানি ২০১২’ শীর্ষক এই সমীক্ষা বলছে, জার্মানিতে উগ্র ডানপন্থি মতবাদে বিশ্বাসীর সংখ্যা দুই বছর আগের তুলনায় বেড়েছে৷ দু’বছর আগে ৮.২ শতাংশ জার্মান এই মতবাদের অনুসারি ছিল৷ এখন সেটা ৯ শতাংশ৷ তবে পূর্ব জার্মানিতে এই হারটা ১৬ শতাংশ৷

জার্মানির পূর্বাঞ্চলের করুণ অর্থনৈতিক অবস্থা ও সেখানে বেকারত্বের হার বেশি হওয়ায় ঐ অঞ্চলের লোকজনের মধ্যে উগ্র ডানপন্থির সংখ্যা বেশি বলে সমীক্ষায় মন্তব্য করা হয়েছে৷

গণতন্ত্র ও মানবাধিকার রক্ষায় এসব উগ্র ডানপন্থিদের দিকে সরকার তথা সকলের মনোযোগ দেয়া জরুরি বলে মনে করে ফ্রিডরিশ এবার্ট ফাউন্ডেশন৷

জার্মানির একটি গোয়েন্দা সংস্থার হিসেবে, দেশটিতে প্রায় ২৫ হাজার ডানপন্থি জঙ্গি রয়েছে, যাদের মধ্যে নয় হাজারই হিংসাত্মক মনোভাবের৷

অভিবাসীদের সম্পর্কে আরও জানতে এখানে ক্লিক করুন।

জেডএইচ/ডিজি (রয়টার্স)

সোর্সঃ dw.de

Print Friendly, PDF & Email