সঠিক বিশ্ববিদ্যালয় পোগ্রাম এবং ডিগ্রী বাছাই

 

বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রী এবং প্রোগ্রাম; সঠিক ডিগ্রী প্রোগ্রাম বাছাইঃ

 

  • ডিগ্রী এবং প্রোগ্রাম বাছাই নিয়ে প্রাথমিক কিছু কথাঃ

  •  প্রত্যেকটি ডিগ্রী একটি  নির্দিষ্ট একাডেমিক যোগ্যতা সম্পন্ন ছাত্রদের প্রদান করা হয়। আপনি যখন একটি ডিগ্রী প্রোগ্রাম নির্বাচন করবেন, শুধুমাত্র পড়াশোনার জন্য নির্বাচন করবেন না। ঐ প্রোগ্রাম শেষ করে আপনার ভবিষ্যৎ কি তাও খেয়াল রাখতে হবে। আপনি যে ডিগ্রি অর্জন করতে চান তার সিদ্ধান্ত ও আপনাকে নিতে হবে। জার্মান বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রী প্রোগ্রাম প্রদান করে ইচ্ছা, দক্ষতা এবং শিক্ষার স্তর যাচাই করে।

আপনার একাডেমিক কর্মস্থল যেখানে তার উপর নির্ভর করে জার্মান বিশ্ববিদ্যালয় আপনাকে নিম্নলিখিত অপশন প্রস্তাব করবে:-

  • নতুন ছাত্র হিসেবে ব্যচেলর প্রোগ্রাম আরম্ভ (স্নাতকোত্তর)।
  • আপনার দেশে থাকাকালীন বিদেশী প্রোগ্রামের  বেশ কিছু সেমিস্টার সম্পন্ন করা।
  • স্নাতকোত্তর ডিগ্রী পাওয়ার পর স্নাতক প্রোগ্রামে অন্তর্ভূক্ত হওয়া।
  • ডক্টরেট ডিগ্রী অর্জন করা।

 

১)জার্মানিতে নতুনদের জন্যঃ “ফিউচার ইজ নট ইক্যুয়াল টু পাস্ট -২০১৭”

২)জার্মানি তে ব্যাচেলর ও একটি সহজ সমীকরণ

৩)বার্লিনঃ পড়ার জন্য, শুধু চাকরির জন্য নয়।

৪)জার্মান গ্রেড পদ্ধতি

 

  •   ডিগ্রীসমূহ:

আপনি জার্মান বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে নিম্নলিখিত একাডেমিক ডিগ্রী অর্জন করতে পারবেন:-

  1. ব্যাচেলর ( বিবিএ, বিএ, বিএসসি, ব্যাচেলর অব ইঞ্জিনিয়ারিং)
  2. মাস্টার্স (এমএ, এমএসসি, মাস্টার্স অফ ইঞ্জিনিয়ারিং)
  3. ডক্টরেট

 

  • ব্যাচেলর ( বিবিএ, বিএ, বিএসসি, ব্যাচেলর অব ইঞ্জিনিয়ারিং)

স্নাতক ডিগ্রী আন্তর্জাতিক শ্রম বাজারে স্বীকৃত প্রথম স্তরের বিশ্ববিদ্যালয় যোগ্যতা। একটি স্নাতক ডিগ্রী প্রোগ্রামে সাধারণত ছয় থেকে আট সেমিস্টারে একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে মৌলিক বিষয়গুলো শিখতে পারবেন। একবার প্রোগ্রাম সম্পন্ন করতে পারলে আপনি আপনার পেশাগত জীবন শুরু করতে পারবেন অথবা পরবর্তী উচ্চ ডিগ্রীর জন্য পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারবেন(মাস্টার্স ডিগ্রী)।

 

  • মাস্টার্স (এমএ, এমএসসি, মাস্টার্স অফ ইঞ্জিনিয়ারিং)

মাস্টার্স ডিগ্রী জার্মান বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে প্রদত্ত দ্বিতীয় স্তরের বিশ্ববিদ্যালয় যোগ্যতা। একটি মাস্টার্স প্রোগ্রামে আরও দুই থেকে চার সেমিস্টার লাগে, যা ইতিমধ্যে আপনার অর্জিত জ্ঞান প্রসারিত বা গভীর করতে সহায়তা করে। আপনার মাস্টার্স ডিগ্রী শেষ করার পর চাইলে আপনি পেশাদার জীবনে প্রবেশ করতে পারবেন বা পরবর্তী উচ্চতর একাডেমিক ডিগ্রী অর্জনের জন্য পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারবেন (ডক্টরেট ডিগ্রী)।

মাস্টার্স প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য পূর্বশর্ত হল, আপনাকে সাফল্যের সাথে একটি স্নাতক প্রোগ্রাম (বা সমতুল্য অন্য প্রোগ্রাম) সম্পন্ন করেছেন তা দেখাতে হবে।

 

 

  • ডক্টরেটঃ

ডক্টরাল প্রোগ্রাম ডক্টরেট শিরোনাম (পিএইচডি) এর মর্যাদাসম্পন্ন হয়। আপনার পড়াশোনার সময় আপনাকে একটি গবেষণা পত্র (গবেষণামূলক) লিখতে হবে। আপনার পিএইচডি প্রোগ্রামের সময়কাল আপনার গবেষণা প্রকল্পের বিষয়ের উপর নির্ভর করে, কিন্তু সাধারণত দুই থেকে পাঁচ বছরের মত সময় লাগে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে জার্মান বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বোলগনা প্রক্রিয়া অনুসারে তাদের ডিগ্রী প্রোগ্রামগুলির সংস্কারের জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছে। নতুন স্নাতক এবং মাস্টার্স ডিগ্রী প্রোগ্রামগুলো “ডিপ্লোমা” এবং “ম্যাজিস্টারি আর্টিয়াম” প্রোগ্রামগুলির সাথে প্রতিস্থাপিত হয়েছে। উপযুক্ত পড়াশোনার সুযোগ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে আপনার অনুসন্ধানে এই ডিগ্রীগুলো মুখোমুখি হতে পারে। উভয়ই একটি মাস্টার্স ডিগ্রীর তুলনীয়।

“ডিপ্লোমা” ঐ সব ছাত্রদের দেওয়া হয় যারা প্রাকৃতিক বিজ্ঞান, প্রকৌশল, অর্থনীতি, সমাজবিজ্ঞান বা শিল্পসম্মত বিষয়গুলোতে তাদের গবেষণা সফলভাবে সম্পন্ন করেছে। “ম্যাজিস্টারি আর্টিয়াম” (এম.এ.) সাধারণত মানবিক বিভাগে পড়াশোনা সমাপ্ত করার পর প্রদান করা হয়।

 

  • স্টেট পরীক্ষাঃ

যদি আপনি একজন ডাক্তার, আইনজীবী, শিক্ষক বা ফার্মাসিস্ট হিসেবে জার্মানিতে কাজ করতে চান,তাহলে আপনাকে একটি রাষ্ট্রীয় পরীক্ষায় পাস করতে হবে। আইন, মেডিসিন, ফার্মেসি বা শিক্ষক সার্টিফিকেশন বিষয়ে পড়াশোনা শেষ করার পর আপনি আপনার প্রথম রাষ্ট্রীয় পরীক্ষা গ্রহণ করতে পারবেন। তার পরে, আপনি দ্বিতীয় রাষ্ট্র পরীক্ষা অথবা ডক্টরেট করার জন্য একটি পেশাদারী, বাস্তব প্রশিক্ষণ শুরু করতে পারবেন। রাষ্ট্র পরীক্ষা কোন একাডেমিক ডিগ্রী নয়; এটি একটি রাষ্ট্রীয় স্বীকৃত ডিগ্রী। এবং এই পরীক্ষার নিয়মাবলী বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা নির্ধারিত হয় না, বরং কেন্দ্রীয় রাষ্ট্রগুলো এই কাজ করে থাকে। উপরন্তু, পরীক্ষাগুলো রাষ্ট্রীয় পরিদর্শক পরিচালনা করে থাকে। গুরুত্বপূর্ণ ব্যপার হল, রাষ্ট্রীয় পরীক্ষা পাস করা মানে এই নয় যে আপনি একটি চাকরি পাবেন! জার্মান রাষ্ট্রের পরীক্ষা আপনার দেশে স্বীকৃত কিনা তা আগে জানতে হবে।

 

  •  প্রয়োজনীয় টিপস

অনেক ডিগ্রী প্রোগ্রাম থেকে পছন্দের প্রোগ্রাম নির্বাচন করা মোটামুটি সহজ নয়। আপনি যদি সিদ্ধান্ত গ্রহনে দ্বিধাদ্বন্দে থাকেন তাহলে নিচের  অনলাইন পরীক্ষাগুলি আপনাকে সাহায্য করতে পারে।

  • টেস্টএস:-আপনি জার্মান বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার জন্য প্রস্তুত কিনা তা পরীক্ষা করুন (বিনামূল্যে)।
  • স্ব-মূল্যায়ন – কারিগরি বিষয়ের জন্য বিশেষভাবে উপযুক্ত; যা আপনার  শক্তি এবং দুর্বলতা পরীক্ষা করে(বিনামূল্যে)

 

 

 

তথ্যসূত্রঃ.study-in.de

অনুবাদ করেছেনঃমোঃ হাসান মতিউর রহমান

 

Print Friendly, PDF & Email
Hasan Motiure Rhaman

Hasan Motiure Rhaman

ঢাকা কলেজ।
বিবিএ(চুড়ান্ত বর্ষ)।
ব্যবস্থাপনা বিভাগ।
জার্মান ভাষা(এ১ শেষ)
Hasan Motiure Rhaman