• Home »
  • Block-Account »
  • যারা ডয়েচ ব্যাংকের নতুন ফর্মের মাধ্যমে ব্লক একাউণ্ট খুলতে চাচ্ছেন তাদের কে বলছিঃ জুলাই, 2016

যারা ডয়েচ ব্যাংকের নতুন ফর্মের মাধ্যমে ব্লক একাউণ্ট খুলতে চাচ্ছেন তাদের কে বলছিঃ জুলাই, 2016

 

১. শুধু মাত্র এ্যাপ্লিকেশন ফর্ম এবং পাসপোর্টের কপি এ্যাম্বাসি দ্বারা সত্যায়িত করে নিলেই চলবে। ব্যাঙ্ক স্টেটম্যান্ট এবং ইনভেলাপ সত্যায়নের দরকার নেই। এছাড়া এখন ইউনিভার্সিটির অফারলেটারও বাধ্যতামূলক ভাবে পাঠাতে হবে। এই নিয়ম যারা বর্তমানে পুরাতন ফর্ম দিয়ে আবেদন করছেন তাদের জন্যও প্রযোজ্য। চেষ্টা করবেন পাসপোর্টের কপিতে যেন সকল তথ্য পরিষ্কার ভাবে বোঝা যায়। এক্ষেত্রে পাসপোর্ট স্ক্যান করে রঙ্গিন প্রিন্ট করে দেয়া ভালো।

২. নতুন নিয়ম অনুসারে উপরের সকল কগজপত্র শুধু মাত্র এ্যাম্বাসি পাঠালেই সেটা ডয়েচ ব্যাংক গ্রহন করবে। আপনি পাঠালে সেটা গ্রহণযোগ্য হবেনা।

৩. নতুন ফর্মের ৭ নম্বর পেইজে মাঝের দিকে ” On opening the account, funds of €—.– (or equivalent) will be transferred” এই ঘরে আপনি একাউন্ট ওপেন করার পর প্রথমবার যে পরিমাণ টাকা পাঠাবেন সেটা লিখবেন। আপনি যদি প্রথমবার শুধু মাত্র ৮০৪০ ইউরো পাঠান তাহলে এখানে ৮০৪০০০ ই লিখবেন। আর যদি অন্যান্য খরচ ও পাঠান তাহলে সেটা সহ যোগ করে মোট পরিমাণটা লিখবেন। এইখানে ভালো করে খেয়াল করবেন টাকার পরিমাণ লিখার পর অবশ্যই দুটো শুণ্য দিতে ভুলবেন না। খেয়াল করে দেখুন ডান দিক থেকে দুই ঘর পর একটা দশমিক আছে। সুতরাং আপনি ৮০৪০ এর পরিবর্তে ৮০৪০০০ লিখবেন।পরের শূণ্য দুটো এমনিতেই দশমিকের পরের ঘরে চলে আসবে।

৪. “I anticipate an additional annual transaction volume of —-.–€ (Or equivalent)” এই ঘর শুধু মাত্র তারাই পূরণ করবেন যারা পরে বাংলাদেশ থেকে আরো টাকা নিবেন। মানে ব্লকের টাকা ছড়াও যদি আপনি আরো টাকা মাসে মাসে নিতে চান। হিসেব করে বছরে আনুমানিক কত টাকা ট্রানজেকশান হতে পারে এমন একটা পরিমাণ লিখবেন এখানে। ঠিক তার নিচের ঘরেই বামপাশের বক্সে ক্রস দিয়ে ডান পাশে যে আপনাকে সেই টাকাটা পাঠাবে তার নাম লিখবেন।

৫. ব্যাংক স্টেটম্যান্ট যেই একাউন্ট এর হবে পরবর্তীতে সেই একাউন্ট থেকেই ব্লকের জন্য টাকা ট্রান্সফার করতে হবে। এ ক্ষেত্রে আপনি যে কারো একাউন্ট ব্যাবহার করতে পারবেন।এই কাজগুলো আপনারই একাউন্ট থেকেই হতে হবে এমন কোন বাধ্যবাধকতা নেই।

পরিশেষে বলতে চাই যারা উইন্টার ২০১৬/২০১৭ এর জন্য অফারলেটার পেয়েছেন তারা পুরোনো ফর্ম দিয়েই এখনকার কাজ চালিয়ে নিন। আপনার আবেদন ফর্ম যদি ৩০শে জুলাইয়ের আগে তাদের কাছে পৌঁছে তাহলে আর কোন সমস্যা নেই। নতুন ফর্মের অনেক বিষয় নিয়ে এখনও এ্যাম্বাসি আর ডয়েচ ব্যাংকের মধ্যে তেমন কোন আলোচনা হয়নি বলেই আমার ধারণা।

সবার জন্য শুভ কামনা রইলো

লিখেছেনঃ

Yunus Ali Muhammad Numan

Print Friendly, PDF & Email