• Home »
  • Accommodation »
  • ব্লক একাউন্ট ও স্টুডেন্ট ভিসার নতুন নিয়মের হালনাগাত এপ্রিল, ২০১৫

ব্লক একাউন্ট ও স্টুডেন্ট ভিসার নতুন নিয়মের হালনাগাত এপ্রিল, ২০১৫

 

গত কয়েক মাস ধরে জার্মানিতে ব্লক একাউন্ট নিয়ে অনেক জল্পনা কল্পনা চলার পর, অবশেষে হঠাত করে এই ১লা এপ্রিল, ২০১৫ তে একটা সুখবর আসলো, যে জার্মান এমব্যাসি একটি নোটিশ ঝুলিয়ে দিয়েছে তাদের ওয়েব সাইটে! তাতে লেখা জার্মানিতে স্টুডেন্ট ভিসার জন্য ব্লক একাউন্টের টাকা জার্মানে পাঠানোর দরকার নাই ভিসার আগে। তবে টাকাটা বাংলাদেশ ব্যাংকে থাকবে” ভিসার পরে পাঠাতে হবে।

কিন্তু কি এক কারনে তার ৭ দিনের মাথায় অর্থাৎ ৭ই এপ্রিল, ২০১৫ এমব্যাসি নতুন নোটিশ সরিয়ে আবার সেই পুরানো নোটিশ ঝুলিয়ে দিয়েছে তাদের ওয়েবসাইটে। এতে হয়তো নতুন ভাবে সপ্ন দেখা অনেকেই আশাহত হয়েছে। কি আর করা। তৃতীয় বিশ্বের দেশ! কে কাকে কি বলবে!

পুরানো নিয়ম অনুযায়ী ব্লক একাউন্টের টাকা জার্মানির ব্যাংকে ব্লক একাউন্ট খুলেই দেখাতে হবে। এবং তার পরিমান ৮,০৪০ ইউরো (আট হাজার চল্লিশ) ।

বাংলাদেশের জার্মান এমব্যাসি নতুন কিছু সংযোজন বিয়োজন করেছে তাদের ভিসার নির্দেশনা ফর্মে। ইংরেজীতে দেয়া নোটিশটি হুবহু বাংলায় তুলে ধরা হল এখানে-

 

ছাত্র ছাত্রীদের জন্য নির্দেশনা

জানুয়ারী ২০১৫

দয়া করে নোট করে রাখুন-এই নিয়মটা শুধুমাত্র জার্মানিতে পড়াশুনার জন্য দুই রকমের ভিসার জন্য প্রযোজ্য। ১) একাডেমিক ও ২) ভাষা শিক্ষার জন্য।

 

১. স্টুডেন্টস ভিসার জন্য (সরাসরি এডমিশন, ভাষা শিক্ষার কোর্স ব্যাতিত) প্রয়োজন হবেঃ

– একটি অরিজিনাল পাসপোর্ট, সাথে দুই (২) কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।

-দুই (২) সেট এপ্লিকেশন ফর্ম, মুল কাগজ পত্র (সার্টিফিকেট ও অন্যান্য), এবং সমস্ত কাগজ পত্রের দুই (২) সেট সত্যায়িত ফটোকপি।।

-যেকোনো জার্মান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রেরিত এডমিশন লেটার (সাথে সাবজেক্ট এবং কাকে এডমিশন দেয়া হচ্ছে উল্লিখিত)।

– প্রথম বছরের পড়াশুনার খরচ খরচা বাবদ জার্মান ব্যাংকে ব্লক একাউন্টে ৮,০৪০ ইউরো (আট হাজার চল্লিশ) সমপরিমান অর্থ দেখাতে হবে।

– ৯০ দিনের একটি হেলথ ইন্স্যুরেন্স করতে হবে, এবং তা শেনজেন স্টেটস এর অনুমোদিত ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি হতে হবে।

– আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত ইংরেজী দক্ষতার পরীক্ষার সার্টিফিকেট (যেমন- IELTS, TOEFL, TOEIC, TELC, CPE ) প্রদর্শন করতে হবে।

প্রয়োজনেঃ

আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত জার্মান ভাষার উপর দক্ষতার কমপক্ষে B1 লেভেলের সার্টিফিকেট প্রদান করতে হবে (ছাত্র/ছাত্রীদের কোর্সগুলো সমস্ত  জার্মান ভাষায় সম্পন্ন সাপেক্ষে)

২. স্টুডেন্টস ভিসার জন্য (বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যায়ন সাথে ভাষা শিক্ষার ক্ষেত্রে) আপনার প্রয়োজন হবেঃ

– উপরে উল্লিখিত সকল কাগজপত্র, সাথে  যেকোনো জার্মান ভাষা শিক্ষা কেন্দ্র থেকে প্রেরিত জার্মান ভাষা শিক্ষা কোর্সের বা “স্টুডেন্ট কলিগ” এর  এডমিশনের অরিজিনাল কনফার্মেশন লেটার।

অপশনাল হিসেবেঃ

-কন্ডিশনার এডমিশন লেটার

-ইউনি এসিস্ট থেকে প্রাপ্ত চুড়ান্ত কনফার্মেশন লেটার (কিছু কিছু ইউনিভার্সিটির ক্ষেত্রে প্রযোজ্য)

 নিন্মে উল্লিখিত অতি জরুরী নোটিশগুলো দৃষ্টিগোচর করার অনুরোধ জানানো হচ্ছেঃ

১. সমস্ত প্রকার পরিপুর্ন দাখিলকৃত কাগজ পত্রাদি ভিসা একসেপ্ট হওয়ার গ্যারান্টি বহন করেনা। জার্মান এমব্যাসির ভিসা সেকশনের সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত বলে গন্য হবে। আপনাকে পরবর্তীতে আরো প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি সংযোজন করতে হতে পারে।

২. ৬০ ইউরো (ষাট) সমপরিমান টাকা, এমব্যাসিতে আবেদন পত্র দাখিল করার সময় ভিসা ফি বাবদ প্রদান করতে হবে। সাথে সনদপত্র পরীক্ষা নিরীক্ষা বাবদ ব্যাচেলরের জন্য ১৫,০০০ টাকা এবং মাস্টার্সের জন্য ২০,০০০ টাকা প্রদান করতে হবে।

৩.  জার্মানির উদ্যেশ্যে দেশ ছাড়ার কমপক্ষে আট (৮) সপ্তাহ পুর্বে এপ্লিকেশন ফর্ম সাবমিট করতে হবে।

৪. সকল আবেদনকারীকে তাদের সাথে যোগাযোগের জন্য মোবাইল নাম্বার ও ইমেইল আইডি অবশ্যই আবেদন পত্রের সাথে উল্লেখ করে দিতে হবে।

 

সংযোযন ও অনুবাদঃ শফিকুর রহমান

 * * ** *

বর্তমান নোটিশের মুল ইংরেজী কপি- Students visa requirements and procedure

এপ্রিল ১ এর নোটিশটির একটি ইংরেজীতে কপি- Instructions for Students-April 2015

 

* * ** * ** * ** * ** * ** * *

Print Friendly, PDF & Email