• Home »
  • Agency-Hope-vs-Reality »
  • জার্মানিতে উচ্চশিক্ষা, এজেন্সির বিজ্ঞাপন এবং কিছু কথা

জার্মানিতে উচ্চশিক্ষা, এজেন্সির বিজ্ঞাপন এবং কিছু কথা

 

আমরা যতই বিনামূল্যে তথ্য দিয়ে সাহায্য করার চেষ্টা করি না কেন, এজেন্সিদের ব্যবসা চলবেই। এর কারণ আর কিছু না, তোমাদের শর্টকাট খোঁজার চেষ্টা। দোষটা যতটা না এজেন্সির, তারচেয়েও বেশি যারা শর্টকাট খুঁজে বিদেশে যাবার চেষ্টা করছ, তাদের।

নিচের ছবিতে দেয়া এজেন্সির একটা বিজ্ঞাপনের কিছু ব্যাখ্যা দেবার চেষ্টা করছি। ঘুরে ফিরে সব বিজ্ঞাপনে এই জাতীয় মিষ্টি কথাগুলো থাকে।

১। ১০০% স্কলারশীপ্টা শুধুমাত্র একটা মিথ্যে প্রলোভন। জার্মানি দয়া করে টিউশন ফি নিচ্ছে না, এটাকে স্কলারশীপ বলে চালানোটা এক ধরণের প্রতারণা। যেকেউ এই কথা বললে বুঝতে হবে তার অন্য কোন উদ্দেশ্য আছে। স্কলারশিপ শব্দটা ব্যবহার করে এরা শুধুমাত্র মন গলানোর চেষ্টা করছে। এদিকে ২০১৮ থেকে বাডেন ভুর্টেমবার্গ রাজ্যে টিউশন ফি আসছে। একইসাথে জার্মানিতে অল্প কিছু কোর্সে সবসময়েই টিউশন দিতে হয়। যেমন এমবিএ।এজেন্সি বিজ্ঞাপন

২। আইএলটিস বা জার্মান ভাষা জানা ছাড়া আবেদন করা সম্ভব। মিথ্যে কথা। এটাতে যারা মজবে তারা আমার ধারণা ফার্মগেট ব্রিজের উপরে সর্বরোগের অব্যার্থ মলম ব্যবহার করে অভ্যস্ত।

৩। জার্মানিতে ক্রেডিট ট্রান্সফার করা যায়, এমন একটা গুজব নাকি ডাডের অফিস থেকে রটানো হয়েছে। এজেন্সিরা তো বলেই। জার্মানিতে ক্রেডিট ট্রান্সফার আমাদের দেশ থেকে এখনও সম্ভব নয়।

৪। হোয়াইট কলার জব আছে অনেক। তবে তারা নিশ্চিত ভাবেই এইভাবে শর্টকাট ধরে জার্মানিতে আসে নি। যারা এসেছে তাদের অনেকেই কলার তো দুরের কথা, শার্ট পড়ারও দরকার হয় না এমন কাজে ব্যস্ত।

৫। পড়ালেখার পাশাপাশি পার্ট টাইম জব পাওয়া যায়, এটা অবশ্য সত্যি কথা। তবে এইসব চাকরি পেতে জার্মান ভাষা জানা অতি আবশ্যক। সমস্যা হল, এইটা তারা লেখে না। কারণ এটা লিখলে কেউ এজেন্সির মাধ্যমে যেতে চাইবে না।
#BSAAG_Agency_Hope_vs_Reality

 

 

আদনান সাদেক, ০১.১২.২০১৬

Print Friendly, PDF & Email